অনলাইন থেকে ইনকামের সেরা দুইটি মাধ্যম

হ্যালো বন্ধুরা আশা সকলে অনেক ভালো আছেন। আপনাদের কে আমাদের সাইট Coderdrive.com এ স্বাগতম। আজকের আর্টিকেল এ আমি আপনাদের সাথে অনলাইন থেকে ইনকামের কিছু মাধ্যম নিয়ে আলোচনা করবো। তো চলুন আর দেরি না করে আজকের আর্টিকেল টি শুরু করা যাক।

 

অনলাইন থেকে ইনকাম

 

ওয়েবসাইট তৈরি করে ইনকাম

আপনারা এখন আমার এই আর্টিকেল টি নিশ্চয়ই একটি ওয়েবসাইট এ দেখতে পারছেন। এই সাইট টি ও কিন্তু একটি ইনকামের মাধ্যম।

বর্তমান সময় এ ওয়েবসাইট বানিয়ে ইনকাম করার পদ্ধতি পুরাতন হলেও অনেকটাই কার্যকরী ও জনপ্রিয়। একটি ওয়েবসাইট বানিয়েও প্রায় প্রতি মাসে মাসে লক্ষ টাকার উপরে ও ইনকাম সম্ভব। এমনকি, আপনি জেনে অনেকটা অবাক হতে পারেন যে, এখন একটি ওয়েবসাইট ফ্রিতে খুলা যায় খুব সহজে। আপনি চাইলে ফ্রিতে ব্লগস্পট থেকে খুব সহজেই ফ্রিতে নিজের একটি ওয়েবসাইট খুলে নিতে পারেন। তবে সেখানে একটি পেইড ডোমেইন পার্ক করতে হবে। তার জন্য কিছু টাকা খরচ করতে হবে।

তো আপনার ওয়েব সাইট এ আপনি আপনার ইচ্ছামত, মানুষের দর-কারি এবং প্রয়োজনীয় কিছু আর্টিকেল বা তথ্য ওয়েবসাইটে প্রতিনিয়ত পোস্ট বা পাবলিশ। যাতে সব সময় আপনার ওয়েবসাইটে অন্যরা ভিজিট করে। তাহলে আপনি এই ওয়েবসাইট থেকে ইনকাম শুরু করতে পারবেন।

সাধারণত একটি ওয়েবসাইট থেকে শুধুমাত্র এক ভাবে ইনকাম করেনা। একটি ওয়েবসাইট থেকে ইনকাম করার জন্য অনেক ধরনের মাধ্যম রয়েছে। যেমনঃ বিভিন্ন এড নেট ওয়ার্কের এড নিজ সাইটে বসিয়ে ইনকাম বা আপনি চাইলে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে ও নিজের ওয়েবসাইট থেকে ইনকাম শুরু করতে পারেন। তাছাড়া আপনি দেখবেন আমাদের বাংলাদেশের মানুষের হাজার রকমের ওয়েবসাইট রয়েছে।

ঐ সকল ওয়েবসাইটে সব সময় ভিজিট লক্ষাধিক মানুষ। কেনো তারা ঐ সাইটে ভিজিট করে? উঃ ঐ সাইটে হয়তো তাদের দরকারে লাগবে এমন জিনিসের তথ্য আছে। তাই তারা সেটা জানতে ঐ সাইটে ভিজিট করে। আপনি আপনার দরকারে নির্দিষ্ট একটি পরিকল্পনা করে খুলে নিন নিজের একটি ওয়েবসাইট। তার পর সেখানে প্রতিনিয়ত মানুষের দরকারে আসবে এমন আর্টিকেল পাব্লিশ করুন। এবং আপনার সাইটে নির্দিষ্ট পরিমাণ আর্টিকেল বা তথ্য থাকলে আপনি সব থেকে বড় এডনেটওয়ার্ক ‘গুগল এডসেন্স’ এর এডস পাওয়ার জন্য রিকুয়েস্ট করতে পারেন। যদি এপ্রুভ হয় তাহলে আপনার ইনকাম তখন থেকে শুরু হবে। আর না হলে আবার নিজের সাইট টি কে ভালো ভাবে রেডি করে আবার রিকুয়েষ্ট করুন।আর এপ্রুভ হয়ে গেলে নিজের ওয়েবসাইট থেকে ইনকাম করা শুরু করে দিন।

একটি ওয়েবসাইট থেকে ইনকাম শুরুটা অনেক পরিমাণে কঠিন হতে পারে। যদি সফল না হন বার বার চেষ্টা করবেন। দেখবেন এক সময় আপনি সফল হয়ে যেতে পারেন ওয়েবসাইট তৈরি করেই। তাই আপনি চাইলে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অনলাইন থেকে টাকা উপার্জন করতে পারবেন।

 

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে ইনকাম?

আপনারা হয়তো জেনে থাকবেন যে অনলাইন থেকেই প্রায় সব রকম পণ্যই অর্ডার দেওয়া হয়। এবং সেগুলো নির্দিষ্ট যায়গায় ডেলিভারি ও করা হয়। অনলাইন থেকে উপার্জন করার জন্য অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় করার কোন বিকল্প নেই। আপনি যদি চান তাহলে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে অনলাইন থেকেই টাকা আয় করতে পারেন।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কোম্পানি তাদের প্রোডাক্ট গুলো বিক্রি করে দেওয়ার জন্য অন্যদের কাছে তাদের পণ্য দিয়ে থাকে। আপনি যদি এই কাজ করতে চান তাহলে তাদের সাথে কথা বলে কাজ শুরু করতে পারেন। আপনি ফেসবুকে বা যে কোনো সোশাল মিডিয়াতে বড় একটি গ্রুপ খুলে বা নিজের কোনো বড় সংখ্যার ফলোয়ার প্রোফাইল থাকলে সেখানে এই কাজটি করতে পারেন।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় করার প্রায় সহশ্র সহশ্র(হাজার হাজার) প্ল্যাটফর্ম রয়েছে। আপনি চাইলে সেখানে সেখানে যুক্ত হয়ে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং শুরু করে দিতে পারেন আজ থেকেই। অনলাইনে আয় করার জন্য সবচেয়ে সহজ ও জনপ্রিয় মাধ্যম অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয়। সেখানে যুক্ত হওয়ার পর, তারা যে প্রোডাক্ট বা পণ্য গুলো বিক্রি করতে চায় সেই প্রোডাক্ট এর জন্য আপনাকে একটি শর্টকাট লিংক দিবে। এই লিঙ্কে ক্লিক করে যত লোক পণ্য অর্ডার করবে ততোই আপনার কমিশন আসবে।

বিভিন্ন রকম পণ্যের জন্য বিভিন্ন রকম কমিশন আপনার একাউন্টে যোগ হতে থাকবে। একটি নির্দিষ্ট পরিমাণে এমাউন্ট হলে ওই অ্যাকাউন্ট থেকে আপনার টাকা উত্তোলন (উইথড্র) করে নিতে পারবেন খুব সহজেই।

অনলাইন থেকে আত করার জন্য আপনি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় এই মাধ্যমটা বেছে নিতে পারেন।

তো বন্ধুরা আশা করি আজকের আর্টিকেল টি আপনাদের ভালো লেগেছে।

এরকম আরো টিপস ও ট্রিকস পেতে ভিজিট করতে থাকুন আমাদের সাইট টি।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *